বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও বর্তমান রাজনৈতিক নেতাদের অবস্থান

প্রকাশিত: আগস্ট ১৫, ২০২০

আজ ১৫ আগস্ট, বাঙালি জাতির জন্য গভীর শোকের দিন। ১৯৭৫ সালের এই দিনে ইতিহাসের নৃশংসতম হত্যাকাণ্ডে সপরিবারে প্রাণ হারান বাঙালি-জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। গভীর শোক ও শ্রদ্ধার সঙ্গে আমরা আজ তাদের স্মরণ করি। কিন্তু কিছু দিবসে তাকে স্মরণ আর তার স্মৃতিতে অশ্রু নিবেদনই কি যথেষ্ট? আমরা তার জীবন থেকে, তার অমর বাণী থেকে কতটুকু শিক্ষা গ্রহণ করতে পেরেছি তাই বিবেচনার বিষয়। স্মরণ করাতে চাই তার ৭ই মার্চের সেই অমর ভাষণের কথা।

বঙ্গবন্ধুর আদর্শ ও বর্তমান রাজনৈতিক নেতাদের অবস্থান

কী গভীর আবেগ! সাধারণ মানুষের প্রতি গভীর ভালোবাসা, ধর্মবর্ণ নির্বিশেষে সকলের প্রতি অকৃত্রিম দায়িত্ববোধ, শত্রুদের ব্যাপারে চরম সজাগ ও সচেতনতা সব মিলিয়ে অন্যতম নেতৃত্বের গুণাবলী সম্পন্ন এজকন মানুষ ছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। ন্যায়-নীতির ব্যাপারে তিনি ছিলেন আপসহীন। তিনি বলেছিলেন, ন্যায্য কথা একজন বললেও আমরা তা মেনে নেব। কিন্তু তার সেই নীতি-আদর্শ আজ আমরা ভুলে গেছি।

তার ভাষণের মধ্যে ন্যূনতম অশ্লীল বাক্যের প্রয়োগ নেই, কারো বিরুদ্ধে উসকানি নেই, বিদ্বেষ নেই। যারা বাংলার মানুষের উপর অন্যায়ভাবে গুলি চালিয়েছে তাদের উপর পর্যন্ত উত্তপ্ত জনতাকে উন্মত্ব রোষাণলে ঝাঁপিয়ে পড়ার বিন্দুমাত্র ইঙ্গিত নেই, বরং তাদের প্রতি তিনি বললেন, তোমরা আমার ভাই, তোমরা ব্যারাকে থাকবা, তোমাদের কেউ কিছু বলবে না। সরকারি সম্পত্তির উপর হামলা, ভাঙচুর ইত্যাদি ধ্বংসাত্মক কোনো কার্য করবার কোনো ইঙ্গিত নেই। আমাদের নেতারা যদি এই ভাষণ থেকে শিক্ষা নিতে পারত তবে রাজনীতির চেহারা কি কিছুটা ভিন্ন হতে পারত না?