তাজবীদ নিয়ে বাড়াবাড়ি এবং রাসূল সা. এর ভবিষদ্বাণী

প্রকাশিত: মার্চ ০৭, ২০২১

জাবির ইবনু আবদুল্লাহ (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, একদা আমরা কিরা’আত করছিলাম, এমনসময় সেখানে রসূলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) আসলেন। তখন আমাদের মধ্যে আরব বেদুইন এবং অনারব লোকজন ছিল। তিনি (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বললেন, তোমরা (কুরআন) পড়, প্রত্যেকেই উত্তম। কেননা অচিরেই এমন সম্প্রদায়ের অর্বিভাব ঘটবে যারা কুরআনকে তীরের ন্যায় ঠিক করবে (তাজবীদ নিয়ে বারাবাড়ি করবে), তারা কুরআন পাঠে তাড়াহুড়া করবে, অপেক্ষা করবে না।

[হাদিস নং ৮৩০, সালাহ অধ্যায়, অনুচ্ছেদ-১৩৯: নিরক্ষক ও অনারব লোকের কিরাআতের পরিমাণ, সুনানে আবু দাউদ]

তাজবীদ নিয়ে বাড়াবাড়ি এবং রাসূল সা. এর ভবিষদ্বাণী

এই হাদিসে কত স্পষ্টভাবে উল্লেখ করা হয়েছে - তিলাওয়াতকারীদের মধ্যে আরব ও অনারব, বেদুঈন সবাই ছিল, যাদের আরবীয় উচ্চারণ কখনোই এক হওয়া সম্ভব নয় এবং বিশেষ করে অনারবদের আরবী উচ্চারণে ভুল থাকবে সেটাও স্বাভাবিক। তা সত্ত্বেও রাসূল সা. বলেছেন তোমাদের সবারটাই উত্তম।

আর এটাও আশংকা করলেন, ভবিষ্যতে এমন একটা সম্প্রদায় আবির্ভূত হবে, যারা এই তাজবীদকে বা আরবীয় উচ্চারণকে তীরের ন্যায় ঠিক করবে, একটু এদিকও না, ওদিকও না। আবার এই উচ্চারণের ক্ষিপ্ততাও তীরের ন্যায়। আজ সেই আশংকা কাঁটায় কাঁটায় মিলে গেছে।

হাদিসের লিংক - http://ihadis.com/books/abi-dawud/hadis/830