সহজ জিনিসও সহজ নয়

প্রকাশিত: এপ্রিল ১৬, ২০২১

প্রতিদিন কাজের ফাঁকে, পরিচিতদের মাঝে, অফলাইনে কিংবা অনলাইনে একটাই লক্ষ্য থাকে কিভাবে মানুষের কাছে নিজেদের অবস্থান পরিষ্কার করা যায়। কারণ একটা আয়াতের কথা যখন মনে পড়ে তখন আমি স্তব্ধ হয়ে যাই (তাগাবুন-১০) । শুরু আছে শেষ নাই এর নাম অনন্তকাল । কিভাবে  এই মানুষগুলো  চিন্তাহীনভাবে দিনাতিপাত করছে ? এই চিন্তায় কিছু সময় খেই হারিয়ে ফেলি।

এরা জনে না আল্লাহর নীতি মোতাবেক মানুষের প্রকারভেদ ও ফলাফল (তাগাবুন-২)। যদি জানে তাহলে  সচেতন হবে। তাই সচেতন  করার কাজটা করতে ঘুরঘুর করে ঘুরি এর কাছে ওর কাছে।

এটা করতে গিয়ে সমবয়সী তো দুরে থাক বাবার বয়সী লোকদের সাথে মিশতে হয় কখনো তাদের থেকে বড়দের সাথে। 

সহজ জিনিসও সহজ নয়
ছবি ফ্লিকার থেকে নেয়া

এযাবৎ যা দেখলাম তা হলো যাদের শিক্ষা ব্যাকগ্রাউন্ড মাদ্রাসা রিলেটেড তারা ধর্ম সংক্রান্ত সমস্যা নিয়ে আলোচনায় রাত পার করে দিতে পারবে কিন্তু যখন মূলে হাত দিবেন নিজেদের অবস্থানের দিকে আঙ্গুল তুলবেন তখন তারা প্রকারভেদে ঢুকে যাবে । আলিয়া ব্যাকগ্রাউন্ড হলে যা একটু খোলামেলা আলাপ করা যায়  কওমি ব্যাকগ্রাউন্ড হলে তো কথাই নেই। তাহক্বীক করতেই রাত পার। 

আজকে একজন আলেম আমাকে শেরকের শাস্তি ও এর সম্পর্কে সচেতনতার গুরুত্ব, মানুষের বিবেকের ব্যবহার, আহকাম-আরকান মানা না মানার গুরুত্ব বুঝালেন দীর্ঘক্ষন। 

আমি বললাম আমরা কি শিরকমুক্ত না শিরকযুক্ত ? 

এইবার উনি শিরকের প্রকারে চলে গেলেন।

১। শেরকে  জলি

২। শেরকে খফি।

আবার বললাম প্রকারভেদ অনুযায়ী কি শেরক মাফ হবে?

 -"না।" উনি জবাব দিলেন। 

সমস্যার থেকে সমাধানের দিকে গুরুত্ব দিয়ে আমি  আইয়ামে জাহেলিয়াতের  সামাজিক অবস্থা , রাসূলাল্লাহর জীবনী, মানুষকে সচেতন করার পথ ও পদ্ধতি নিয়ে আলোচনার পর যখন সেটা নিজের জ্ঞানের সাথে, বিশ্বাসের সাথে সঙ্গতিশীল হলো না  আবার কিছু জিনিস অস্বীকারও করতে পারলেন না তখন  দোটানায় পড়ে গেলেন। 

এই পয়েন্টে এসে উনার বিবেকের ব্যবহার উনি কতোটুকু করবেন সেটা সময়ই জবাব দিবে বলে আমি বিশ্বাস করি । 

তবে কোনো জিনিসকে আমরা  যতোটা সহজভাবে সহজ বলি আদৌ সেই জিনিসটা ততোটা সহজ নয়। যেটা প্রমাণ হয় নিজের বেলায়।