কে প্রকৃত আবেদ? - একটি তুলনামূলক আলোচনা

প্রকাশিত: ডিসেম্বর ২৩, ২০২০

বুদ্ধিজীবিরা দেশের সম্পদ। কিন্তু দেশের দুর্দিনে বুদ্ধিজীবী নয়, পাগলাটে কিছু ছন্নছাড়া দুঃসাহসী মানুষের প্রয়োজন হয়। অতিরিক্ত বুদ্ধিজীবীরা সংগ্রামের বেলায় পিছু হটেন। কিন্তু তুলনামূলক কম বুদ্ধির লোকেরা নিজেদের জীবন বিলিয়ে দিতে দ্বিধাবোধ করে না। উদাহরণ, মুক্তিযুদ্ধের সময় সেই ক্র্যাকপ্লাটুনের পাগলা তরুণগুলো আর নাখাভুখা মুক্তিযোদ্ধাগণ। 

ধরুন আপনি আপনার পিতার খুব অনুগত ছেলে। পিতার কথার বাইরে একটা কাজও করেন না। খুব নম্র-ভদ্র। কেউ আপনার বিরুদ্ধে কখনো কোনো অভিযোগ নিয়ে আসেনি। এলাকায় আপনার খুব সুনাম। আপনার আরও একটা ভাই আছে। সে আপনার পিতাকে তেমন একটা গুরুত্ব দেয় না। কথা শোনে না। ঠিকমতো ঘরেও থাকে না।

কে প্রকৃত আবেদ

ওদিকে আপনার পিতার সাথে অন্যদের ঝগড়া আছে। কোনো একদিন শত্রুরা আপনার পিতার উপর হামলা করে বসল। তখন আপনি কি করলেন? হাউমাউ করে কান্না শুরু করে দিলেন। আপনার বাবার মাথায় বাড়ি দেয় আর আপনি তারস্বরে চিৎকার করেন। কিন্তু কোনো প্রতিকার বা প্রতিহতের চেষ্টা করলেন না। কারণ আপনি ভীতু। আপনি কাপুরুষ চরিত্রের। ওদিকে আপনার ভাইটি আপনার পিতা আক্রান্ত হওয়ার সংবাদ শুনেই দৌড়ে ছুটে এল। হাতের কাছে যা পেল তাই দিয়ে শত্রুকে একাই নাস্তানাবুদ করে তাড়িয়ে আপনার পিতাকে নিশ্চিত মৃত্যুর হাত থেকে রক্ষা করল। 

এখন বলুন, এই যে আপনি আপনার পিতার এত সুবোধ পুত্র, কিন্তু চূড়ান্ত দুঃসময়ে আপনি পিতার কোনো কাজেই এলেন না, এই অবস্থায় আপনার পিতা কি আপনার ঐ ভাইয়ের অন্যান্য অপরাধ ভুলে তাকে বুকে টেনে নেবেন, নাকি তাকে বকাঝাকা করে দূরে সরিয়ে আপনাকেই বুকে টেনে নেবেন?

আল্লাহর মহা আবেদ, ফরজ এবাদতের পাশাপাশি নফল এবাদতেও আপনি পাক্কা। কোনো সুন্নত নফল কিছুই ছাড়েন না। তসবীহ তাহলীলে আপনি ব্যস্ত থাকেন। কিন্তু সংগ্রামে নাই। অন্যায়ের বিরুদ্ধে আপনি রুখে দাঁড়ান না। বিপদ দেখলে হাওয়ার বেগে পাগড়ির লেজ উড়িয়ে হুজরায় ঢুকে যান। বলুন, আপনার মতো এই মহা আবেদের কি প্রয়োজন মহান আল্লাহ তায়ালার? অপরদিকে সুরা কেরাত ভালো করে পড়তে পারে না, নফল সুন্নত তো দূরের কথা। ঠিকমতো ফরজ আমলও করে না। কিন্তু সে অন্যায়ের বিরুদ্ধে দাড়িয়ে যেকোনো সময় নিজের প্রাণ বিসর্জন দিতে প্রস্তুত। বিন্দুমাত্র অন্যায় মেনে নিতে রাজী নয়। 

এখন বলুন, শেষ বিচারের দিনে আল্লাহর কাছে কে মহা পুরষ্কৃত হবেন? আপনার মতো কাপুরুষ কিন্তু মহা আবেদ, নাকি অন্যায়ের বিরুদ্ধে দাঁড়িয়ে জীবন দেওয়া সাধারণ লোকটি?

উত্তর হবে, অবশ্যই ঐ সাধারণ লোকটি। অথচ আপনি সারাজীবন কি করেছেন? তার আমল নিয়ে উপহাস করেছেন। তার সুরা কেরাতের ভুল ধরে কাটিয়েছেন। তাকে অন্যের কাছে তাচ্ছিল্যরূপে উপস্থাপন করেছেন।